উৎসবমুখর পরিবেশে অনুষ্ঠিত হল চাঁদপুর জেলা সাংবাদিক ক্লাবের ঈদ পুণর্মিলনী

চাঁদপুর : ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা, উৎসবমূুখর পরিবেশের মধ্যদিয়ে ও আনন্দঘন আয়োজনের দেশের মধ্যে এই প্রথম কোন জেলায় একটি মডেল ও মাইলফলক হিসেবে রুপধারন করে তার কার্যক্রম শুরু করলো চাঁদপুর জেলা সাংদিক ক্লাব। এ ক্লাবের লক্ষ ও উদ্দেশ্য হলো সাংবাদিকদের দাবী আদায়। এ লক্ষে সংগঠনটি তার আত্মপ্রকাশের পর একমাস ১৬দিনের মাথায় জেলার সকল পর্যায়ের সাংবাদিকদের নিয়ে মিলন মেলার মাধ্যমে চাঁদপুর জেলা সাংবাদিক ক্লাবের ঈদ পুণর্মিলনী অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে।

শনিবার (২৩ জুলাই) শ্রাবনের সকাল থেকে শুরু করে চাঁদপুর শহরের হাজী মহসীন রোডস্থ রসুইঘর পার্টি সেন্টারে এই আয়োজন সম্পন্ন হয়।

জেলার পেশাদার সাংবাদিকদের মিলনমেলার এই আয়োজনে চাঁদপুরের, প্রশাসনিক কর্মকর্তা, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, জনপ্রতিনিধি, সুশীলসমাজ এবং বিভিন্ন শ্রেনী পেশার প্রতিনিধিবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।

সকাল ১১টায় ধর্মীয় গ্রন্থ পবিত্র কোরআন পাঠ এবং সমবেতকণ্ঠে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে শুরু হয় দিনব্যাপী আয়োজনের কার্যক্রম। এসময় অনুষ্ঠানের উদ্বোধনী পর্বে শুভেচ্ছা জানিয়ে জেলা সাংবাদিক ক্লাবের সদস্যদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর জেলা পরিষদ প্রশাসক আলহাজ্ব ওচমান গনি পাটওয়ারী।

প্রথম সেশনে সংগঠনের সদস্য, সকল উপজেলা থেকে আগত মাঠপর্যায়ের পেশাদার সাংবাদিক এবং আমন্ত্রিত অতিথিদের ঈদের সেমাই, দুুদের পায়েশ ও দেশীয় ফল দিয়ে আপ্যায়ন করা হয়। এরপর আগত সাংবাদিক এবং আমন্ত্রিত অতিথিগণ একে অন্যের সাথে শুভেচ্ছা এবং কুশল বিনিময় করে ঈদ আনন্দ উপভোগ করেন।

দুপুরে অনুষ্ঠিত হয় শুভেচ্ছা বিনিময় এবং আলোচনা সভা। এতে টেলিকনফারেন্সের মাধ্যমে মাঠ পর্যায়ের পেশাদার সাংবাদিকদের শুভেচ্ছা জানান চাঁদপুর-২ (মতলব উত্তর-দক্ষিণ) আসনের সংসদ সদস্য অ্যাড. নুরুল আমিন রুহুল, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজ কল্যান সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী।

দুপুর ১২ টার পর্বে প্রধান অতিথি ছিলেন চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব নাসির উদ্দীন আহমেদ এবং বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে নাছির উদ্দিন আহমেদ বলেন, গণমাধ্যম হলো একটি রাষ্ট্রের চতুর্থ স্তম্ভ। একটি রাষ্ট্রের গণমাধ্যম যদি শক্তিশালী হয়, তবে সে রাষ্ট্রে অনেক বেশি সুরক্ষিত থাকে। এদেশের সাংবাদিকরা অনেক বেশি পরিশ্রমী এবং মেধাবী। তারা সমাজের সমস্যা, অনিয়ম, দুর্নীতির পাশাপাশি রাষ্ট্রের উন্নয়ন অগ্রযাত্রা তুলে ধরেন। এতে করে সমস্যার যেমন সমাধান হয়, তেমনিভাবে উন্নয়নও ত্বরান্বিত হয়। বঙ্গবন্ধু কন্যার হাত ধরে দেশে এই উন্নতি এবং অগ্রযাত্রায় সাংবাদিকদের অনেক বড় ভূমিকা রয়েছে। বৈশ্বিক দুর্যোগ এবং মহামারীর মধ্যমেও আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী অত্যন্ত সাহসিকতা এবং বিচক্ষণতার মাধ্যমে দেশ পরিচালনা করছেন। বিশেষ করে গ্যাস এবং বিদ্যুৎ সংকটকে বর্তমান সরকার অত্যন্ত বিচক্ষণতার সাথে মোকাবেলা করছেন।

তিনি আরো বলেন, চাঁদপুরের সাংবাদিকরা পজেটিভ সাংবাদিকতা করে থাকেন। অনেকেই অন্যায়ের কাছে মাথা নত করেন না। সমগ্র চাঁদপুর জেলার মাঠ পর্যায়ের পেশাদার সাংবাদিকদের নিয়ে এই সংগঠনটি প্রতিষ্ঠালাভ করেছে। আমরা এ সংগঠনের উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করছি। চাঁদপুরে এটি একমাত্র সংগঠন, যেখানে সমগ্র জেলার পেশাদার সাংবাদিকরা একটি প্লাটফর্মে এসে দাঁড়াতে পেরেছে এবং পারবে। কাজেই এই সংগঠনের সদস্য এবং কার্যক্রমের পরিধি অনেক বেশি থাকবে। তাই এই সংগঠনের প্রতি আমাদের চাওয়া থাকবে অনেক বেশি। আপনারা সব-সময় ন্যায় এবং সত্যের পক্ষে থাকবেন।

জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ¦ আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল বলেন, সাংবাদিকদের সাহসী ও বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতা করতে হবে। অন্যায়ের বিরুদ্ধে আপনারা কোন আপোষ করবেন না।

সংগঠনের আহ্বায়ক আব্দুর রহমানের সভাপতিতেত্বে ও সদস্য সচিব আব্দুল আউয়াল রুবেল এর সঞ্চালনায় আরো বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জহিরুল ইসলাম, চাঁদপুর জেলা সাংবাদিক ক্লাবের সদস্য ও দৈনিক চাঁদপুর প্রতিদিনের সম্পাদক-প্রকাশক ইকবাল হোসেন পাটওয়ারী, বাংলাদেশ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সমিতির সভাপতি মো. বেলায়েত হোসেন, চাঁদপুর সরকারি কলেজের শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান, সাবেক সাধারণ সম্পাদক আলমগীর হোসেন বাহার, কচুয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক জিয়াউর রহমান হাতেম, চাঁদপুর জেলা সাংবাদিক ক্লাবের আহ্বায়ক কমিটিন সদস্য মোঃ শওকত আলী, শাহাদাত হোসেন শান্ত, মো. জাকির হোসেন, বোরহান উদ্দিন ডালিম, এম এ লতিফ, কেএম মাসুদ, আবদুল গনি, পাক্ষিক চাঁদ নগর পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক সাবিত্রী রাণী ঘোষ, হাজীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এনায়েত উল্ল্যাহ, সিনিয়র সহ-সভাপতি সাখাওয়াত হোসন, হাইমচর প্রেসক্লাবের সভাপতি মো. খুরশিদ আলম, ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাব প্রতিনিধি আনিসুর রহমান সুজন, মতলব প্রেসক্লাবের সভাপতি শ্যামল চন্দ্র, মতলব উত্তর প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক মোঃ সাইফুল ইসলাম ও কচুয়া প্রেসক্লাব প্রতিনিধি আহসান হাবিব প্রমূখ।

আয়োজনের তৃতীয় সেশনে সকল সাংবাদিক এবং অতিথিগণ মধ্যাহ্নভোজে অংশ নেন। সবশেষে আমন্ত্রিত সাংবাদিক ও অতিথিদের ধন্যবাদ জানিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপনী ঘোষণা করা হয়।

এর আগে অনুষ্ঠানের শুরুতেই পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করে সাংবাদিক মাওলানা সাইফুল্লাহ্ এবং গীতা পাঠ করেন সাংবাদিক শ্যামল চন্দ্র। চাঁদপুর জেলা সাংবাদিক ক্লাবের এই ঈদ পুণর্মিলনী অনুষ্ঠানে প্রায় দুই শতাধিক সাংবাদিক অংশ গ্রহন করেন।

ফম/এমএমএ/

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | ফোকাস মোহনা.কম