ইনিংস ও ১৩০ রানে জিতল ভারত

ছবি: সংগ্রহিত

তিন দিনেই প্রথম টেস্ট জিতল ভারত। শনিবার (১৬ নভেম্বর) বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ইন্দোরে জয় এল ইনিংস ও ১৩০ রানে। দুই দিন বাকি থাকতেই সিরিজে ১-০ এগিয়ে গেল বিরাট কোহালির দল। পরের টেস্ট ইডেনে শুক্রবার (২২ নভেম্বর) থেকে, যা গোলাপি বলে হবে। দিন-রাতের সেই টেস্টের দিকেই এখন নজর ক্রিকেটমহলের।

এদিন বাংলাদেশের দ্বিতীয় ইনিংসে একাই লড়ছিলেন মুশফিকুর রহিম (৬৪)। দলকে দু’শো পার করিয়ে দিয়েছিলেন তিনি। অন্যদিকে উইকেট পড়তে থাকলেও একাই টানছিলেন দলকে। ইনিংসের নবম উইকেট হিসেবে তাঁকে ফেরালেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন। মুশফিকুরের ক্যাচ দারুণ ভাবে নিলেন চেতেশ্বর পূজারা। অশ্বিনকে পরের ওভারেই মারতে গিয়ে এবাদত হোসেনও বল তুললেন আকাশে। ক্যাচ ধরলেন উমেশ যাদব। ৬৯.২ ওভারে ২১৩ রানে দাঁড়ি পড়ল বাংলাদেশের ইনিংসে। ৪২ রানে তিন উইকেট নিলেন অশ্বিন। বাংলাদেশের শেষ দুই উইকেটই তাঁর। তবে ভারতের সফলতম বোলার হলেন মহম্মদ শামি। ৩১ রানে চার উইকেট নিয়েছেন তিনি।

চায়ের বিরতির সময় ছয় উইকেটে ১৯১ ছিল বাংলাদেশের স্কোর। তৃতীয় সেশনের শুরুতে মেহেদি হাসান মিরাজকে (৩৮) বোল্ড করেছিলেন উমেশ। তার আগে সপ্তম উইকেটে মুশফিকুর-মেহেদি যোগ করেছিলেন ৫৯ রান। মেহেদির পর ফিরেছিলেন তাইজুল ইসলাম (৬)। এই ইনিংসে মোহাম্মদ শামির চতুর্থ শিকার হয়েছিলেন তিনি। তাইজুলের ক্যাচ ধরেছিলেন উইকেটরক্ষক ঋদ্ধিমান সাহা।

তৃতীয়দিনে লাঞ্চের সময় ৬০ রানে চার উইকেট হারিয়ে ধুঁকছিল বাংলাদেশ। এদিনের দ্বিতীয় সেশনে মাহমুদুল্লাহকে (১৫) ফিরিয়েছিলেন মোহাম্মদ শামি। দ্বিতীয় স্লিপে তাঁর ক্যাচ ধরেছিলেন রোহিত শর্মা। ৭২ রানে পাঁচ উইকেট পড়ার পর ষষ্ঠ উইকেটে মুশফিকুর-লিটন যোগ করেছিলেন ৬৩ রান। লিটনকে এর পর নিজের বলেই ক্যাচ ধরে ফিরিয়েছিলেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন।৩৯ বলে ৩৫ রানের আক্রমণাত্মক ইনিংস খেলেছিলেন লিটন। ১৩৫ রানে ষষ্ঠ উইকেট পড়েছিল বাংলাদেশের।

ফম/শাপ/ 

স্পোর্টস ডেস্ক | ফোকাস মোহনা.কম