আবারও চেয়ারম্যান হতে চান হাবিবুর রহমান গাজী

হাইমচর (চাঁদপুর): আগামী ডিসেম্বর মাসে হাইমচর উপজেলার গাজীপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। নির্বাচনের পক্ষে আগেও ছিলাম, এখনো আছি বলে গনমাধ্যমকে জানিয়েছেনবর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান গাজী। তিনি আবারও চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার বিষয়ে মতামত প্রকাশ করেন।

চেয়ারম্যান বলেন, আমি আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনীত প্রার্থী হয়ে দলীয় ভাবে গেলো নির্বাচন করে বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়েছি। এরপরে একটি কুচক্রী মহল দলের নামে নিজেকে জাহির করে আমার বিজয় নিয়ে নানাহ ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়ে হাইকোটে মামলা মোকদ্দমা করে। নির্বাচনের দুই বছর পরে হাইকোর্ট থেকে আমাকে বৈধ এবং বিজয়ী ঘোষণা করেন। এর পর থেকে আমি চেয়ারম্যান হিসেবে শপথ করতে ও নানান সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। একটা সময় আমি চেয়ারম্যান হিসেবে আমার বিজয়ী ১২ জন মেম্বার সহ শপথ নিয়ে জনগনের কল্যাণে কাজ করে আসছি। আমার ইউনিয়নবাসীদের পাশে থেকে আমি বিগত বছর সেবা করে আসছি এবং সরকারিভাবে ইউনিয়নে উন্নয়ন কাজ করেছি। দলীয়ভাবে আমার দ্বারা কোন বদনাম হয়নি, বা আমি কখনো ক্ষমতার অপব্যবহার করি নাই। সবসময় ন্যায় নীতির পথে থেকে সততার সাথে দায়িত্ব পালন করেছি, এসব বিষয় জনগনের জানা আছে।

তবে আমার ইউনিয়নটি নদীর তীরবর্তী হওয়ায় কিছু জমি আমার পাশের ইউনিয়নে চলে গেলে আমার ইউনিয়ন এর ভূমি ছোট হয়ে যায়। আমি গাজীপুর ইউনিয়ন এর আগের ভূমি ফিরে পেতে আইনের সহযোগিতা চেয়েছি। যাহার মাঝে লিখা আছে আমার ইউনিয়ন এর প্রকৃত সীমানা নির্ধারণ করতে তদন্ত কাজ চলমান আছে। তার পরে আমার ইউনিয়ন এর জণগনের স্বার্থে আমি নির্বাচন করব। আমি চাই আমার ইউনিয়ন এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হউক। কিন্তু একটি মহল চায়না এই ইউনিয়ন এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হউক।

চেয়ারম্যান বলেন, গত কয়েক দিন ধরে নির্বাচন হওয়ার বাতাস আসছে। আমি যতটুকু জানি এখনো নির্বাচন ঘোষনা করা হয়নি। আর যদি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়, তাহলে আমি আবারও আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনীত প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করবো ইনশাআল্লাহ। তাছাড়া আমার ইউনিয়নবাসীদের প্রতি আমি বলতে চাই-আমি বিগত বছরে আপনাদের পাশে থেকে সেবা করেছি। শূন্য ইউনিয়নকে কিছুটা হলেও উন্নয়ন করেছি। আমার চেষ্টায় সরকারিভাবে তিনটি আশ্রায়ন প্রকল্প হয়েছে। আজ সেখানে আপনাদের থাকার বসত ভিটে হয়েছে। আমি যতটুকু পেরেছি বিগত বছরে আমি আপনাদের জন্য করেছি। তাই এই বছর যদি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় তাহলে আপনারা এবারো আমাকে ভোট দিয়ে বিজয় করে আপনাদের সেবা করার সুযোগ করে দিবেন এমনটাই আমার আশা।

পরিশেষে আমি আবারো বলতে চাই আমি নির্বাচনের পক্ষে আছি। নির্বাচন কমিশন ঘোষণা করলে আমি প্রার্থী হিসেবে প্রস্তুত আছি এবং গাজীপুর ইউনিয়নবাসীর সুখে দুঃখে আছি এবং ভবিষ্যতে থাকবো ইনশাল্লাহ।
ফম/এমএমএ/

সংবাদদাতা | ফোকাস মোহনা.কম