আবদুল্লাহ আল মাহমুদ জামানের পিতার দাফন সম্পন্ন

কুমিল্লা: বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের সচিব ও চাঁদপুরের সাবেক অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ বদুল্লাহ আল মাহমুদ জামান এর পিতা হারুন-অর-রশিদ (৭৪) (সকলের প্রিয় হারুন স্যার) গত রবিবার (৮ মে) দিনগত রাত ১১ঃ৪৫ মিনিটে ঢাকা বারডেম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেছেন। (ইন্না লিল্লাহি….. রাজিউন)।
সোমবার (৯ মে) ৩ দফা জানাযা শেষে মরহুমের বাড়ি কুমিল্লা জেলার ভূতাইল গ্রামে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন কার্যক্রম সম্পন্ন করা হয়েছে।
মরহুমের সোমবার বাদ ফজর নারায়নগঞ্জের মিজমিজিতে (মৌচাক, সিদ্ধিরগঞ্জ) প্রথম জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। এরপর সকাল ১০টায় কুমিল্লা জেলার মরহুমের প্রিয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কামাল্লা ডি আর এস উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে  দ্বিতীয় জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। পরে বাদ যোহর মরহুমের নিজ বাড়ি ভূতাইল গ্রামের কবরস্থান মাঠে তৃতীয় জানাজা শেষে ভূতাইল কবরস্থানে দাফন সম্পন্ন হয়।
জানাজা পূর্বে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ সংক্ষিপ্ত আলোচনায় মরহুমের জীবনী সম্পর্কে অনূভুতি ব্যক্ত করে বলেন, মরহুম এ গ্রামসহ আশেপাশের সবার প্রিয় হারুন স্যার নামেই পরিচত ছিলেন। তাঁর হাতে গড়া ছোট ছোট শিক্ষার্থীরা আজ অনেক উঁচু উঁচু স্থানে পৌঁছে গেছে। যার প্রমান মিলে আজকের জানাজাগুলোতে অংশগ্রহণকারীদের দেখলে। তিনি কারো সাথে কখনো খারাপ ভাষায় কথা বলেন নি। সবসময় শান্তভাবেই জলাফেরা করতেন। তাঁর কাছে শিক্ষার্থীরা খুব আগ্রহ সহকারে পড়াশোনা করতে আসতেন। এমন একজন রত্ন হারানো সত্যিই হৃদয়বিদারক ঘটনা।
মরহুমের জেষ্ঠ্য পুত্র বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের সচিব ও চাঁদপুরের সাবেক অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মাহমুদ জামান সকলের কাছে আরজ করে তাঁর বাবার জন্য দোয়া চেয়েছেন।
মরহুম হারুন-অর-রশিদ মৃত্যুর সময় ২ছেলে ও ১ মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে যান।
ফম/এমএমএ/

শাহরিয়া পলাশ | ফোকাস মোহনা.কম